দেশসেরা গবেষক বিখ্যাত প্লাজমা বিজ্ঞানী অধ্যাপক ড. আব্দুল্লাহ আল মামুন’কে সংবর্ধনা

ধামরাই নিউজ২৪,ধামরাই: দেশসেরা গবেষক বিখ্যাত পদার্থ বিজ্ঞানী অধ্যাপক ড. আব্দুল্লাহ আল মামুন বিশ্বসেরা বিজ্ঞানী হিসেবে তালিকাভুক্ত হওয়ায় জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র এসোসিয়েশন অব ধামরাই ( জেইউএসএডি)  পরিবারের পক্ষ থেকে সংবর্ধনা দেওয়া হয়েছে। 

আজ রবিবার (২৯ নভেম্বর)  বিকেলে ধামরাই ঢুলিভিটা মিডসান রেস্টুরেন্টে এই সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। 

মোঃ জাহিদ হাসানের সভাপতিত্বে ও মোঃ রেজওয়ানুর রহমানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি হিসেবে অডিও কলের মাধ্যমে বক্তব্য রাখেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের  উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফারাজানা ইসলাম ।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বিজ্ঞানী আব্দুল্লাহ আল মামুন এর ছাত্র ও শিক্ষক জীবনের স্মৃতিচারণ করেন ফরহাদ হোসেন, মোঃ শহিদুল্লাহ, রুবেল আহমেদসহ একাধিক সাবেক ও বর্তমান শিক্ষার্থীরা। স্মৃতিচারন করতে গিয়ে এই শিক্ষার্থীরা এ বিজ্ঞানীর বিভিন্ন কর্মের প্রশংসা করেন। 

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট সদস্য আশীষ কুমার মজুমদার, সিনেট সদস্য সাবিনা ইয়াসমিন,জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্র ও ধামরাই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সাহাব উদ্দিন, জাঃ বিঃ নবম ব্যাচের ছাত্র নুরুল হুদা, গোলাম কিবরিয়া, এইচ এম রোস্তম, আলমগীর হোসেন, ইউসুফ হোসেনসহ জাবির আরো অনেক শিক্ষার্থী।

ঢাকা জেলার ধামরাই উপজেলার জালসা গ্রামের অধ্যাপক মামুনের জন্ম। কুশুরা আব্বাস আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক মরহুম দরবেশ আলীর  পুত্র তিনি।

ড. মামুনের বড় ভাই ডা.নুরুল আলম বর্তমানে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-ভিসি। তিনি উপজেলার কুশুরা আব্বাস আলী উচ্চ বিদ্যালয় থেকেই এসএসসি এবং ঢাকা সরকারি বিজ্ঞান কলেজ থেকে কৃতিত্বের সাথে এইচএসসি পাশ করেন। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থ বিজ্ঞানের ১৩ তম ব্যাচে ‍তিনি কৃতিত্বের সাথে অনার্স এবং মাস্টার্স সম্পন্ন করেন।

চলতি বছরের বিশ্বসেরা বিজ্ঞানীদের একজন বাংলাদেশের জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. এ এ মামুন (আব্দুল্লাহ আল মামুন)। মার্কিন স্ট্যামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের এক জরিপে তার নাম উঠে এসেছে। বিভিন্ন দেশের সেরা বিজ্ঞানীদের থেকে শতকরা দুজনকে এ তালিকায় স্থান দেয়া হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন অধ্যাপক ড. এ এ মামুন নিজেই। নতুন সাফল্যের জন্য তাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন জাবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলাম। ড. মামুন জাবি শিক্ষক সমিতির সভাপতি ও ওয়াজেদ মিয়া বিজ্ঞান গবেষণা কেন্দ্রের পরিচালক।

বিজ্ঞানে অবদানের জন্য টানা তিনবার বর্ষসেরা গবেষক অধ্যাপক মামুন বাংলাদেশি কোনো বিজ্ঞানী হিসেবে সার্চ ইঞ্জিন গুগলে ১২ হাজার স্কলারস সাইটেশনের মাইলফলক স্পর্শের বিরল কৃতিত্ব অর্জন করেছেন। বাংলাদেশে ডাস্টি ফিজিক্সের কার্যক্রম শুরু হয়েছে তার হাত ধরে। পদার্থের চতুর্থ অবস্থা প্লাজমা ফিজিক্স নিয়ে কাজের জন্য জার্মান চ্যান্সেলর পুরস্কার পেয়েছেন তিনি।

একাধিকবার ‘বাংলাদেশ একাডেমি অব সায়েন্স’ গোল্ড মেডেল লাভ করা ছাড়াও দেশ-বিদেশের অনেকগুলো পুরস্কার পেয়েছেন ড. মামুন। লন্ডনের ইনস্টিটিউট অব ফিজিক্স থেকে যৌথভাবে প্রকাশিত ‘ইনট্রোডাকশন টু ডাস্টি প্লাজমা’ তার উল্লেখযোগ্য প্রকাশনা। জাবির পদার্থবিজ্ঞানে বিএসসি ও এমএসসিতে প্রথম শ্রেণিতে প্রথম হয়েছিলেন অধ্যাপক মামুন। সব বিভাগের মধ্যে সবচেয়ে বেশি নম্বর পেয়েছিলেন এমএসসিতে, থিসিস ছিল ‘প্লাজমা ফিজিক্স’র ওপর। পরে ১৯৯৩ সালে নিজ বিভাগেই প্রভাষক হিসেবে যোগদান করেন। কমনওয়েলথ স্কলারশিপ নিয়ে ব্রিটেনে পিএইচডি করার পাশাপাশি বিশ্বখ্যাত বিভিন্ন জার্নালে বহু গবেষণা প্রবন্ধ লিখেছেন অধ্যাপক ড. এ এ মামুন।

তিনি স্বপ্ন দেখতেন তিনি একজন শিক্ষক হবেন। পরে গবেষক এনিয়ে স্বাভাবিক বাল্যকাল ছাত্র জীবন থেকে কর্মময় জীবনের বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনা করেন।

তিনি তার জন্মভূমি নিজ গ্রাম ধামরাই উপজেলার জালসা গ্রামে একটি আধুনিক মানের হাসপাতাল করবেন বলে ইচ্ছা পোষন করেন।

ধামরাই নিউজ২৪/মো: আনিস উর রহমান/ মাসুদ