লকডাউনে পণ্যবাহী ট্রেন চলছে

কঠোর লকডাউনে যাত্রী পরিবহন বন্ধ থাকলেও চার জোড়া পার্সেল ট্রেনের মাধ্যমে দেশের বিভিন্ন স্থানে পণ্য সরবরাহ করছে বাংলাদেশ রেলওয়ে। পূর্বাঞ্চলের চট্টগ্রাম-জামালপুর সরিষাবাড়ি, ঢাকা-সিলেট এবং পশ্চিমাঞ্চলের ঢাকা-পঞ্চগড় ও খুলনা-চিলহাটি রুটে চলছে এসব ট্রেন। প্রতি কেজি আড়াই থেকে তিন টাকা হিসাবে যে কোনো পণ্য পাঠাতে পারছেন ব্যবসায়ীরা।

লকডাউনে দেশের বিভিন্ন স্থানে পণ্য সরবরাহ স্বাভাবিক রাখতে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ পরিচালনা করছে এ ধরনের চারটি পার্সেল ট্রেন। ১৪ এপ্রিল থেকে চালু হওয়া এসব পার্সেল ট্রেনকে পণ্য ওঠানামার সুবিধার্থে বড় সব স্টেশনেই থামার নিদের্শনা দেয়া হয়েছে।

রেলওয়ে পূর্বাঞ্চল চিফ কমার্শিয়াল ম্যানেজার মোহাম্মদ নাজমুল ইসলাম জানান, খাদ্যশস্য ও বিভিন্ন পাওয়ার প্ল্যান্টের তেলবাহী ট্রেন আমরা সচল রেখেছি।

রেলওয়ে চিফ অপারেটিং সুপারেন্টেডেন্ট এ এম সালাউদ্দিন বলেন, কৃষিপণ্য বাজারজাত করতে এসব ট্রেন ব্যবহার করা যাবে।

পণ্যবাহী এসব ট্রেনে শহরাঞ্চল থেকে শুঁটকি, মাছ, গাড়ির টায়ার, ফার্নিচার, বিভিন্ন ইলেকট্রনিকসসামগ্রী পাঠানো হচ্ছে প্রত্যন্ত অঞ্চলে। আর গ্রামাঞ্চল থেকে আনা হচ্ছে ডিম-সবজিসহ বিভিন্ন কৃষিজাত পণ্য। পরিবহন খরচ তুলনামূলক কম হওয়ায় ব্যবসায়ীদেরও আগ্রহ বাড়ছে।

করোনা সংক্রমণের প্রথম ধাপে গত বছরের পহেলা মে এ ধরনের একটি পার্সেল ট্রেন চালু করে কয়েক দিনের মধ্যেই পণ্য ঘাটতির কারণে বন্ধ করে দিয়েছিল রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ।